নিউজ

বাড়িতে রাখা সোনা থেকে পাবেন মোটা টাকা আয়, মিলবে ট্যাক্সও ছাড়, দারুন সুযোগ নিয়ে আসলো রিজার্ভ ব্যাংক!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সোনা বা রূপ র মতো ধাতব পদার্থ এর অধিক দামি হওয়ার কারণে আমাদের মধ্যে অনেকেরই সোনা বা রুপো জমানোর বা কেনার একটা আগ্রহ দেখা যায়। এবং বিপুল পরিমানের সোনারূপো আমরা সাধারণত নিরাপত্তাজনিত কারণে ব্যাংকের লকারে রেখে থাকি । তবে তার জন্য গুনতে হয় মোটা অংকের টাকা। এর উপরে সেই সোনার থেকে পাওয়া যায় না কোন সুদ। কিন্তু এবার আপনি পেতে পারেন আপনার জমানো সোনা থেকে সুদ । করতে পারেন আয়।

সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া একটি নির্দেশিকা জারি করেছে। সেখানে বলা হচ্ছে যে ব্যাংকে থাকা সোনার উপর আপনি পেতে পারেন সুদ এবং এটি একটি প্রকল্পের মাধ্যমে পাওয়া যেতে পারে । প্রকল্পটির নাম হচ্ছে “আর বি আই গোল্ড মনিটাইজেশন স্কিম” । যা কিনা অনেকটা ফিক্স ডিপোজিট এর মতন। অর্থাৎ আপনি কোন টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট করে রাখলে সেখান থেকে যেমন সুদ পান ঠিক তেমনই এবার টাকার বদলে সোনা রাখলে পাবেন সুদ। তো আসুন দেখে নেওয়া যাক ঠিক কত টাকা সুদ পাওয়া যেতে পারে এই সোনা থেকে। এবং এ সম্পর্কিত আরও তথ্য ।

●এই স্কিমে তে ১ বছরের জন্য ০.৫০ শতাংশ বার্ষিক সুদ মিলবে ৷ ১ থেকে ২ বছরের জন্য ০.৫৫ শতাংশ, ২ থেকে ৩ বছরের জন্য ০.৬০ শতাংশ সুদ মিলবে ৷

●বিনিয়োগকারীর কাছে সুদ নেওয়ার দুটি অপশন রয়েছে ৷ এক প্রতি বছরের শেষে সুদ তুলে নিতে পারেন বা ম্যাচিউরিটির সময় একবারে গোটা সুদ নেওয়া ৷ ডিপোজিট করার সময় এর মধ্যে একটি অপশন সিলেক্ট করতে হবে ৷

●প্রিম্যাচিউর উইথড্রয়েলের সুবিধাও রয়েছে ৷ STBF অনুযায়ী, এক বছরের লকইন পিরিয়ড থাকে ৷ এরপর একটি ছোট অঙ্কের পেনাল্টি চার্জ দেওয়ার পর তা তুলে নিতে পারবেন ৷

এই স্কিমে সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ক্যাপিটল গেন ট্যাক্স । ৷ ডিপোজিট করা সোনার মূল্য বেড়ে গেলেও এর উপর কোনও ক্যাপিটাল গেন ট্যাক্স দিতে হয় না ৷ সুদ থেকে হওয়া আয়ের উপর এটা ধার্য হয় না ৷ ম্যাচিউরিটিতে ডিপোজিটার ঠিক সেই ফর্মেই সোনা পাবেন যে ফর্মে জমা দিয়েছিলেন ৷

এর পাশাপাশি আমরা জেনে নেবো ঠিক কী কী আর নির্দেশিকা রয়েছে এই স্ক্রিমেগোল্ড এফডি- ভারতীয় নাগরিকরা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে পারবেন ৷ গোল্ড এফডি জয়েন্ট অ্যাকাউন্ট হিসেবে খোলা যেতে পারে ৷ বিনিয়োগকারীর কাছে ১ থেকে ১৫ বছরের সময় সিলেক্ট করার বিকল্প রয়েছে ৷

১ থেকে ৩ বছরের সময়কে শর্ট টার্ম ব্যাঙ্ক ডিপোজিট বলা হয় ৷ ৫ থেকে ৭ বছরের ডিপোজিটকে মিডিয়াম টার্ম গর্ভমেন্ট বলা হয় ৷ ১২ থেকে ১৫ বছরের ডিপোজিটকে লং টার্ম গর্ভমেন্ট ডিপোজিট বলা হয়ে থাকে ৷ তাহলে আর অপেক্ষা কিসের ? আজই যান এবং ব্যাংকে রেখে আসুন আপনার বাড়িতে জমানো সোনা ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button