নিউজ

‘যোগীর রাজ্যে হবে দুর্গাপূজা’ অনুমতি দিলো উত্তরপ্রদেশ সরকার!

Advertisement

নিজস্ব প্রতিবেদন :-যোগী আদিত্যনাথ । উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এই নাম টার সাথে কমবেশি আমরা সকলেই পরিচিত। বেশ কিছুদিন আগে এই যোগী আদিত্যনাথ উত্তরপ্রদেশে থাকা বাঙ্গালীদের উদ্দেশ্যে একটি নির্দেশ দিয়েছেন। এবং সেখানে বলেছিলেন যে এবারের দূর্গা পুজা যেন না করা হয় ।

Advertisement

কিন্তু এই বক্তব্যের পর রীতিমতো এক মন ভাঙ্গার পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছিল উত্তর প্রদেশের মধ্যে থাকা সকল বাঙ্গালীদের মনে । কিন্তু কার্যত বিভিন্ন দিক থেকে চাপ এবং অনুরোধ এর জন্য সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে হলো উত্তর প্রদেশ সরকারকে। মিলল পুজো করার অনুমতি ।

Advertisement

২০১৯ সালের একটি বৈঠক থেকে তিনি বলেছিলেন যে উত্তরপ্রদেশের দুর্গাপুজো বন্ধ করার কথাও মাথায় আনবেন না। সেই যোগী আদিত্যনাথ ২০২০ তে উত্তরপ্রদেশে লখনৌ তে দুর্গাপূজা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য তিনি বলেন যাদের পুজো করার ইচ্ছে তারা যেন বাড়িতে মূর্তি পূজা করেন । কিন্তু এর পাশাপাশি তিনি রামলীলাতে এরকম কোন বিধি-নিষেধ জারি করেন নি । ফলস্বরূপ বাঙ্গালীদের মনে প্রশ্ন জাগে যে উত্তর প্রদেশের সরকার তাহলে কি বাঙালি বিদ্বেষী? ইচ্ছাকৃতভাবে এরূপ করা হচ্ছে ? ।

Advertisement

এই সিদ্ধান্তের উত্তরপ্রদেশে লখনৌ তে থাকা বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করা হয়। যদিও হাইকোর্টে মামলাটি খারিজ করে দিয়েছে এবং এই বিষয়ে কোনো হস্তক্ষেপ করবে না বলেছেন । কিন্তু বিভিন্ন দিক থেকে চাপ ও অনুরোধ আসার জন্য রীতিমতো নিজের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেন যোগী আদিত্যনাথ। এর পাশাপাশি পশ্চিমবাংলায় থাকা ভারতের জাতীয়তাবাদী সংগঠন” বাংলাপক্ষ ” একটি নোটিশ দিয়ে ছিলেন উত্তর প্রদেশ সরকার তথা যোগী আদিত্যনাথ কে । সেখানে তারা উত্তরপ্রদেশে বাঙালির শ্রেষ্ঠ পুজো দুর্গা পুজো, করার দাবি জানান।

Advertisement

সরকারের এই সিদ্ধান্তের পর লখনউয়ের বেঙ্গলি ক্লাবের সভাপতি অরুণ ব্যানার্জী বলেন, ‘রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে সমস্ত বাঙালীরাই খুশি। আমরা সরকারের নির্দেশিকা পালন করেই পুজোর আয়োজন করব। আর গত বছর গুলোর তুলনায় এবছর ছোট করেই পুজো করা হবে।” তিনি জানান, ‘আমাদের এই দুর্গা পুজো ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে পালিত হয়ে আসছে।

Advertisement

এই পুজো বন্ধ হলে আমাদের সবার মনই ভেঙে যেত। তবে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তে আমরা খুব খুশি। এই পুজোর মাধ্যমে আমরা করোনা ভাইরাসের বিনাশের জন্য মায়ের কাছে প্রার্থনা করব।” এর পাশাপাশি গোটা রাজ্যে দুর্গা পুজো করার অনুমতি দেবে যোগী সরকার । তেমনটাই মনে করছে ওখানকার বাঙালিরা ।

Advertisement

Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button