নিউজ

কৃষি আইন দ্বারা কৃষকদের গলা টিপছে কেন্দ্র সরকার, ফের মোদিকে আ’ক্রমন নবজ্যোত সিং সিধুর!

Advertisement

নিজস্ব প্রতিবেদন:-দেশজুড়ে এখন বেশ উত্তপ্ত পরিবেশ । কারণ প্রায় কেন্দ্রীয় সরকার ছাড়া সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা লাগু করা কৃষি বিলের বিরোধিতা পথে নেমেছে । পাঞ্জাব এবং হরিয়ানার থেকে দেশের বেশির ভাগ কৃষি ফসল উৎপাদন হয়ে থাকে ।

Advertisement

এবং ওই দুই রাজ্য বিগত অনেক বছর ধরে বিগত অনেক বছর ধরে গোটা দেশকে খাদ্য সরবরাহ করে আসছে । কাজেই এই বিলের প্রভাব থ ওই দুই রাজ্যে সব থেকে বেশি পড়েছে। এমনটাই মতামত অনেকের । কিন্তু এবার তার বাস্তব চিত্রটা দেখা গেল। দেড় বছর পর ফের আরও একবার প্রতিবাদী সুরে দেখা গেল ন সিং সিধু কে । না কোন রাজনৈতিক দলকে কটাক্ষ করে, না কারোর প্রতি ব্যক্তিগত আক্রমণ করে, শুধুমাত্র সমস্যা সমাধানের কথা উল্লেখ করে চলল প্রতিবাদ।

Advertisement

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য সোমবার এবং মঙ্গল বার এই দুইদিন নিজের বাসভবনে একটি বৈঠকের আয়োজন করেন তিনি। এবং তাদের সমর্থকদের কংগ্রেসের পতাকা আনতে বারণ করেছিলেন। শুধু প্ল্যাকার্ডে কৃষকদের ছবি থাকবে এবং সমর্থকরা চাইলে তার নিজস্ব ছবি থাকতে পারে সেখানে ।এমনটাই বলেছিলেন তিনি তার সমর্থকদের উদ্দেশে। কি হয়েছিল সোমবারের বৈঠকে ?আসুন।

Advertisement

সোমবার দিন হওয়া বৈঠকে থেকে জানা যায় যে সরকার প্রস্তাবিত নতুন কৃষি বিলের প্র-তি-বাদে গতকাল অর্থাৎ সোমবার সংগুরুর মনেওয়াল গ্রামে আয়োজিত কিষাণ সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, বেসরকারী সংস্থাগুলিও তাদের কর্মচারীদের বেতন বহুগুণ বৃদ্ধি করেছে।

Advertisement

কিন্তু কৃষকদের ফসলের এমএসপি মাত্র ১৫ গুণ বেড়েছে। কৃষকদের সাহায্য করার বদলে কেন্দ্রীয় সরকার তাদের শ্বাসরোধের চেষ্টা করে কষ্ট দিচ্ছে। এর পাশাপাশি তিনি বলেন গত ৪০ বছর ধরে পাঞ্জাব এবং হরিয়ানার সমগ্র দেশকে খাদ্য যোগান দিয়ে চলেছে। অথচ এখন রাজ্যকে নিজের প্রাপ্য পেতে গেলে ভিক্ষা করতে হয়েছে কেন্দ্রের কাছে ।

Advertisement

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য তিনি ওই দিনেও বলেন যে সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে এক হতে হবে। যদি পাঞ্জাবের ১২ হাজার গ্রাম একত্রিত হয়ে যায় তাহলে কেন্দ্রীয় সরকারের ভিত এমনিতেই কেঁপে উঠবে । তাই সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে কৃষকদের স্বার্থ এর কথা ভেবে একত্রিত হতে হবে । বেশ কিছুদিন আগে পাকিস্তানি সভায় বক্তব্য রাখার জন্য শুরু হয়েছিল বিতর্ক। সেই বিতর্কে ফেলে ফের দেড় বছর পর ফের আরও একবার দেখা গেল সরব হতে সিধু সিং কে ।

Advertisement

Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button