নিউজ

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এখন সবার জন্য, আপনিও আবেদন করতে পারবেন, যেভাবে করবেন আবেদন!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসেন নরেন্দ্র মোদি । তারপর একের পর এক জনহিতকর কাজ করে গেছেন তিনি । চেষ্টা করছেন যতটা সম্ভব মানুষকে সুবিধা প্রদান করার ঠিক সেরকমই প্রধানমন্ত্রীর একটি বড় প্রকল্পের নাম হলো প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ।

এই প্রকল্পের আওতায় এসে উপকৃত হয়েছেন সাধারণ থেকে নিম্ন সাধারণ মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষেরা। এই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা আওতায় যে সকল মানুষেরা আর্থিক ক্ষ-তি গ্রস্থ বা নিম্ন আয়ের যুক্ত সেই সমস্ত মানুষদের বাড়ি তৈরি করার প্রকল্প । এই প্রকল্প মূলত তিনটি ধাপে সম্পন্ন হবে বলে জানা গিয়েছিল ।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা তিনটি ধাপ হলো১)প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এর ধাপ ১ এপ্রিল ২০১৫ থেকে মার্চ ২০১৭ বিস্তির্ণ হবে এবং ১০০ শহরগুলির একটি মোট দেখতে হবে। উন্নয়নমূলক কাজ শুরু এবং এই পর্বে সম্পন্ন ।
.
২)প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এর ফেজ ২ এপ্রিল ২০১৭ থেকে মার্চ ২০১৯ থেকে এবং এই পর্বে বিস্তির্ণ হবে, ২০০ টি শহর এর একটি মোট আবৃত এবং উন্নয়ন করা হবে.

৩) PMAY এর ফেজ ৩ এপ্রিল ২০১৯ থেকে মার্চ ২০২২ থেকে এবং এই পর্যায়ে শহরের শাসনভার বাম আবৃত এবং উন্নয়ন করা হবে সময় বিস্তির্ণ হবে. ।

এই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় যারা সুবিধা ভুক্ত হবেন তারা হলেন সমাজের নিম্ন আয়ের করা মানুষেরা। এর পাশাপাশি তপশিলি উপজাতি সুবিধা পাবে এই প্রকল্পের । তবে আগামী তৃতীয় ধাপে প্রকল্প খুব শিগগিরি শুরু হতে চলেছে । এই প্রকল্পের বিশেষ কয়েকটি বৈশিষ্ট্য হলো সরকার ঋণ থেকে শুরু করে ১৫ বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য সুবিধাভোগী কোন কাজে আসল হাউজিং ঋণ ৬.৫% সুদের ভর্তুকি প্রদান করবে.PMAY অধীনে কোনো হাউজিং স্কীম স্থল মেঝে যদিও অগ্রাধিকার ভিন্নভাবে-সমর্থ এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের দেওয়া হবে. এর অধীনে ঘর নির্মাণ প্রযুক্তি যে ইকো বান্ধব মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে.।

এই প্রকল্পের আওতায় বলা হয়েছে কোন ব্যক্তি কে প্রথমে একটি ঘর কিনতে হবে বা তৈরি করতে হবে যেখানে ভর্তুকি হিসেবে সরকার থেকে ১ থেকে ২.৩ লাখ টাকা পর্যন্ত ভর্তুকি পাওয়া যাবে । সাধারণত যেকোনো ব্যাঙ্ক থেকে কোন গৃহ ঋণ নিলে সেটি ১০.৫ হারে সুদ এর উপর দেওয়া হয়।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় গৃহ ঋণ নিলে ৬.৫ হারে দেওয়া হবে । অর্থাৎ আপনি যদি ৬ লাখ টাকা ১৫ বছরের জন্য ঋণ নেন তাহলে আপনাকে প্রতি মাসে সাড়ে ৬ হাজার টাকা ভরতে হবে । কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় ভর্তুকির পরিমাণ হবে থেকে সাড়ে চার হাজার টাকা । অর্থাৎ ২০০০ টাকা সাশ্রয় হবে । কীভাবে করবেন আবেদন নিচে দেওয়া হল।

সাধারণত দুই রকম ভাবে আবেদন করা যেতে পারে এই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা তে।
১) অনলাইনে ২) অফলাইনে
অনলাইনে করার জন্য আপনাকে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ওয়েবসাইটে গিয়ে নির্দিষ্ট ফরম ফিলাপ করতে হবে ।

অফলাইনে করার জন্য কোন গ্রাহকসেবা কেন্দ্রে গিয়ে ২৫ টাকা দামের একটি ফরম ফিলাপ করে সেখানে জমা করতে হবে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button