নিউজ

‘কবিগুরু জালিয়ানওয়ালাবাগ গণহ’ত্যা’র প্রতিবাদে উপাধি ত্যাগ করেছিলেন’, পাগড়ি বিতর্কে ফের মমতাকে কটাক্ষ রাজ্যপালের!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-গত সপ্তাহে বৃহস্পতিবার নবান্নের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রতিবাদে সামিল ছিলেন প্রায় ৫০ হাজার বিজেপি কর্মী । যাকে নবান্ন অভিযান বলা হয়ে থাকে। রাজ্যের উপর চলা দুর্নীতি এবং আরো অন্যান্য প্রচুর ইস্যু নিয়ে ওই দিন তারা সরব হয়েছিলেন এবং নেমেছিলেন কলকাতার রাজপথে ।

যদিও তারা নবান্নের ধার অবধি যেতে পারেনি । তার আগেই তাদেরকে মোকাবিলা করতে হয় রাজ্য পুলিশের সাথে। ব্যারিকেড, কাঁদানে গাস, জলকামান এসব নিয়ে রীতিমত একটা ধুমধুমার পরিবেশ তৈরি হয় সেদিন কলকাতা এবং হাওড়া জুড়ে ।

পুলিশের সাথে ধ্বস্তাধ্বস্তি লাঠিচার্জ বৃষ্টি জলকামান ইত্যাদি ইত্যাদি সাথে রীতিমতো ভাবে জড়িয়ে পড়ে নবান্ন অভিযান কারীরা । কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী তার দুদিন আগেই ঘোষণা করেছিলেন স্যানিটেশন এর জন্য নবান্ন। দু দিন বন্ধ থাকবে । যদিও এই ঘটনাকে ভয় পেয়ে যাওয়া বলে মনে করেছেন বিজেপি ।

এই অভিযানকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও ফুটেজ সবার সামনে আসে যেখানে দেখা যায় অভিযানকারী মধ্যে এক পাঞ্জাবির পাগড়ী খুলে চুল ধরে তাকে বে-ধ-ড়-ক পেটাচ্ছে রাজ্য পুলিশ । তারপর থেকে শুরু হয়ে যায় তর্ক-বিতর্ক কটাক্ষ এবং পাল্টা কটাক্ষ । সেই তালিকা থেকে নিজেকে বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি এ রাজ্যের রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার ।

এর আগেও রাজভবনের সঙ্গে নবান্নের যুদ্ধ তার কথা আমরা জানি । সে রকমই নবান্ন অভিযান এর ঘটনাকে কেন্দ্র করে আরো একবার কটাক্ষ করলেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার । পাগড়ি বিতর্কে ফের রাজ্য সরকারকে ট্যুইট আ-ক্র-মণ রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের।  তিনি ট্যুইটে লিখেছেন, পুলিশ ও স্বরাষ্ট্র দফতর বলবিন্দর সিংয়ের সঙ্গে যে অমানবিক আচরণ করা হয়েছে তা যে কোনও উপায়ে ধামাচাপা দিতে ব্যস্ত।

ওই ঘটনার পক্ষে যুক্তি সাজানোর থেকে ক্ষ-তে মলম দেওয়া প্রয়োজন। …মনে পড়ছে, কবিগুরু জালিয়ানওয়ালাবাগ গণহত্যার প্রতিবাদে উপাধি ত্যাগ করেছিলেন।রাজ্যপালের এই টুইট পর যদিও শাসক দল থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি । তবে এই পাগড়ি বিতর্কে পক্ষে এবং বিপক্ষে প্রচুর মত তৈরি হয়েছে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button