নিউজ

‘অশান্তির ছক কষছে বিরোধীরা, হাথরাসের তরুণীর ধ’র্ষণই হয়নি’, সুপ্রিম কোর্টে স্পষ্ট জানাল যোগী সরকার

Advertisement

নিজস্ব প্রতিবেদন :- “কোন ধ-র্ষ-ণ হয় নি স্রেফ রাজ্যের বদনাম করতে মিথ্যা খবর ছাপানো হচ্ছে”- এরকমই এক চাঞ্চল্য-কর তথ্য উঠে এলো । আমরা জানি উত্তরপ্রদেশে কিছুদিন আগে ১৯ বছরে এক দলিত মেয়েকে চারজন দু-ষ্কৃ-তী উচ্চবর্ণের দু-ষ্কৃ-তী নির্মমভাবে ধ-র্ষ-ণ করে এবং হ-ত্যা করার চেষ্টা করে। অবশেষে ১৪ দিন হাসপাতালে লড়াই জারি রাখার পর মৃ-ত্যু হয় ওই তরুণীর।

Advertisement

তার পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসন মৃ-তদে-হটি-কে রাতের অন্ধকারে পরিবারের অনুমতি ছাড়াই সৎকার করে । যাকে ঘিরে শুরু হয়েছে এর বিতর্ক । বারবার প্রশ্ন উঠেছে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের বি-রু-দ্ধে। তার সাথে সাথে প্রশ্ন উঠেছে তাদের প্রশাসনের বিরুদ্ধেও । এ ব্যাপারে বিভিন্ন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি সরব হয়েছেন উত্তরপ্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে । কিন্তু এবার সেই খোদ উত্তরপ্রদেশ সরকার সরব হলেন এই ঘটনার বিরু-দ্ধে।

Advertisement

এই ঘটনা তদ-ন্ত যেন অতি শীগ্রই করা হয় সে ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী । তাই এই মামলায় সিবিআই তদন্ত দাবি জানানো হয় । কিন্তু ঐদিন সুপ্রিমকোর্টে উত্তরপ্রদেশ সরকার জানান সিবিআই নয় বরং বিচারাধীন তদন্ত করা হোক এমনটাই দাবি করেন তারা ।

Advertisement

এর পাশাপাশি উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টের জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছে । মঙ্গলবার সেই মামলার শুনানি শেষে নির্যাতিতার পরিবার ও এই ঘটনার সাক্ষীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে নির্দেশ দেন বিচারপতিরা। এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী সপ্তাহে।

Advertisement

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ওই নির্যাতিতার দে-হ রাতের অন্ধকারে পুলিশ কেন পুড়িয়ে দিল এরকম প্রশ্ন এর আগে অনেকবার উঠে এসেছে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে। এবার তার উত্তর দিলেন খোদ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। কি বললেন তিনি । তিনি বলেন অশান্তি এড়াতেই এই পদক্ষেপ করে পুলিশ। হলফনামায় বলা হয়েছে, গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছিল সকালে শেষকৃ-ত্য করলে কয়েক হাজার মানুষ জড়ো হত। অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করত।

Advertisement

আইনশৃঙ্খলার কথা মাথায় রেখেই এই পদক্ষেপ। এর পাশাপাশি তিনি এও বলেন যোগী সরকারের দাবি, রাজ্য সরকারের বদনাম করতেই এই ষড়য-ন্ত্র করা হয়েছে। হাথরাসের তরুণীর ধ-র্ষ-ণই হয়নি তা প্রমাণ করতে উত্তরপ্রদেশে প্রশাসন জেজে হাসপাতাল ও ফরেনসিক রিপোর্টকে হাতিয়ার করেছে, যে রিপোর্টে বলা হয়েছিল, মেয়েটির ধ-র্ষ-ণ হয়নি। তাঁর দেহে পেনিট্রেশনের চিহ্ন বা বীর্যে-র উপস্থিতি মেলেনি। সব মিলিয়ে এক উত্তপ্ত পরিবেশ এই মুহূর্তে উত্তরপ্রদেশে বিরাজ করছে যা কবে শান্ত হবে কেউ জানে না ।

Advertisement

Advertisement
Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button