নিউজ

‘ফরাসিদের খু’ন করার অধিকার মুসলিমদের রয়েছে’, হ’ত্যার সমর্থনে বললেন মালয়েশিযার প্রধানমন্ত্রী!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-ধর্ম সেটা যে আমাদের কিছু ধারণ করতে শেখায় । ধর্ম কখনো কোনো মানুষকে হ-ত্যা করতে বা বিপদে ফেলতে শেখায় নি কোনোদিন । তবুও এই ধর্মকে নিয়ে চলতে থাকে বিভিন্ন খেলা ।ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়িয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দেশে হিং-সা-ত্ম-ক ঘটনা আমরা এর আগে দেখেছি ।তবে সম্প্রতি ধর্মীয় কারণে ফ্রান্স ঘটে যাওয়া ঘটনা অন্য সকল ঘটনাকে চাপিয়ে দেয় ।

ফ্রান্সের এক শিক্ষক যিনি পেশায় একজন কার্টুন শিল্পী। তিনি হযরত মুহাম্মদকে কার্টুন চরিত্রের দেখিয়ে ছিলেন তার ছাত্রদের একটি ক্লাসে। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি ।সেখানকার এক ছাত্র সে ব্যাপারে ভীষণভাবে ক্ষুব্ধ হন এবং প্রকাশ্যে ওই শিক্ষকের গলাকেটে হ-ত্যা করে। এরপর এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ছড়ায়। যদিও অপরাধী পুলিশের গু-লি-তে নি-হ-ত হয়েছে ।তবুও এই ঘটনার নিন্দা করেছেন পৃথিবীর প্রায় সমস্ত দেশ গুলি।

তবে এই ঘটনার সমালোচনার পাশাপাশি সমর্থন করেছেন মালয়েশিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এবং তার টুইট রীতিমতো আরো সমালোচনার ঝড় তুলেছে । সম্প্রতি মালয়েশিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অনুযায়ী তার বক্তব্য যে মুসলিমদের অধিকার আছে লক্ষ লক্ষ ফরাসিদের খুন কারার। এই ঘটনাটি এতটা পরিমাণে ভাইরাল হয় যে টুইট কর্তৃপক্ষ থেকে পরবর্তীকালে ওই টুইট টি মুছে দেয় । প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী।

মহাথিরের এই বিষয়ে সমস্ত ট্যুইটগুলিই শুরু হয়েছে রেসপেক্ট শব্দটি দিয়ে। মহাথির বলেন ফরাসি শিক্ষক হ-ত্যা-র ঘটনাটি তুলে এনে বলেন, হত্যাকারী এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছিলেন কারণ ওই শিক্ষক মহম্মদের ছবি ক্লাসে তুলে ধরেছিল। এই ঘটনা তাকে রাগিয়ে দেয়। তাঁর মত, ফরাসিদের উচিত অন্যের ধর্মকে সম্মান করা।

নিসের মেয়র ক্রিস্টিয়ান এসট্রোসি এই নৃ-শং-স হিংসার ঘটনাকে স-ন্ত্রা-সবাদী হা-ম-লা-র আখ্যা দেন। গোটা বিশ্ব এই হানার নিন্দায় সরব হয়ে ওঠে। ফরাসি সরকারের তরফে শহরবাসীকে অনুরোধ করা হয়েছে শহরের যেখানে জঙ্গিরা হমলা চলেছে, সেই স্থান এড়িয়ে চলতে। তবে এই ধরনের স্বামী ও সাম্প্রদায়িক ঘটনা একান্তই কাম্য নয় ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button