নিউজ

‘পিসি-ভাইপোর দল ছেড়ে বিজেপিতে আসুন, আপনাকে বিজেপিতে স্বাগত’,- শুভেন্দু অধিকারীকে আমন্ত্রণ সৌমিত্র খাঁর!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-সামনে যত বিধানসভা ভোট এগিয়ে আসছে ততই পাল্টাচ্ছে রাজনৈতিক মহলের রং। কোথাও কোথাও দেখা যাচ্ছে রদবদল। কোথাও আবার শক্ত হচ্ছে সংগঠন । তবে প্রস্তুতি রয়েছে তুঙ্গে । তার সঙ্গে বেড়েছে মিটিং-মিছিলের সংখ্যা। তার পাশাপাশি চলছে জবাবের পর পাল্টা জবাব এর খেলা। শুধু মাত্র এখানেই থেমে থাকেনি এর পাশাপাশি সৃষ্টি হয়েছে এক জল্পনা। কে কার দলে যোগ দিতে চলেছে আগামী দিনে তা নিয়ে রয়েছে বেশ বড়সড় এক জল্পনা ।

রাজ্যের সেচ এবং পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী সাথে তৃণমূলের সম্পর্ক নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে । শোনা যাচ্ছে শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলের দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে । যদিও এ ব্যাপারে তৃণমূলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে শুভেন্দু অধিকারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুগামী এবং এখনও পর্যন্ত তিনি তাই আছেন । তবে নন্দীগ্রাম থেকে তার করা বক্তব্যের পর ধোঁয়াশা যেন আরো বড় হয় । এর পাশাপাশি তাঁর বক্তব্যের পর নড়েচড়ে বসে গেরুয়া শিবির ।

শনিবার নন্দীগ্রামের সভা থেকে শুভেন্দু বলেছিলেন, ‘প্যারাস্যুটে নামিনি। লিফটে উঠিনি। সিঁড়ি ভেঙে উঠেছি। আমরা সবাই লড়াই করে এসেছি। ছোটলোকদের নিয়ে কথা বললে আমি তার উত্তর দিই না। আশ্চর্য হয়ে যাচ্ছি, কেউ কেউ অতীত ভুলে যায়। ধৈর্য্য ও সহ্য ক্ষমতা রয়েছে আমার।” এর পর থেকেই রাজ্যের রাজনীতিতে শুভেনদুর অবস্থান নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।  আর এই বক্তব্য এরপর বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ সরাসরি আহ্বান জানালেন তার দলে যোগ দেওয়ার জন্য ।

নন্দীগ্রামের সভায় রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বি-স্ফো-র-ক মন্তব্য করার পরের দিনই তাঁকে বিজেপিতে আহ্বান জানালেন বিজেপির রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি তথা সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। রবিবার সকালে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরবিন্দ মেননকে সঙ্গে নিয়ে ছিন্নমস্তা মন্দিরে পুজো দেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।

পুজো দেওয়ার পর যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ বললেন, ”রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলতে চাইছেন বাংলার স্বার্থে সরকার পরিবর্তন করা দরকার। শুভেন্দু অধিকারী মানুষের জন্য কাজ করতে চান। তাই আমরা চাই তিনি কালবিলম্ব না করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিন।”  তাহলে কি আগামী দিনে সত্যি বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী? সত্যি কি বেড়েছে তৃণমূলের সাথে তার দূরত্ব প্রশ্ন অনেকের। ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button