নিউজ

কপিল দেব কি মারা গেলেন? সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এই খবর, জানুন খবরের আসল সত্যতা!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই আমরা প্রায়শই সেলিব্রিটিদের অনেক খবর পাই! সম্প্রতি
১৯৮৩-র বিশ্বকাপ ক্রিকেটজয়ী ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কপিল দেবের আচমকা হার্ট অ্যাটাক হয়।পারিবারিক ভাবে গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়েছে তার মৃ-ত্যু প্রসঙ্গে।এদিন অনেক চেষ্টা করেও জানা যায়নি তার মৃ-ত্যু-র সত্যতা।

তিনি ১৯৯৯ সালের অক্টোবর থেকে আগস্ট ২০০০ সালের মধ্যে ভারতের জাতীয় ক্রিকেট কোচ ছিলেন। ১৯৯৪ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেছিলেন সেই সময় টেস্ট ক্রিকেটে সর্বাধিক উইকেট নেওয়ার রেকর্ডটি তারই ছিল।

বর্তমানে ধারাভাষ্যকার কপিল দেবের মৃ-ত্যু নিয়ে জোর জল্পনা চলতে থাকে দিনভর।

শেষমেষ জানা যায় সফল করোনারি অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। ডাক্তাররা অবশ্য তাঁকে বিশামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। বাড়িতে স্থিতিশীলই রয়েছেন তিনি।

তার মৃত্যুর এই ভুয়ো খবর ছড়ানোর তীব্র নিন্দা করে মদনলাল ট্যুইট করেন, কপিলের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে এমন ভুয়ো খবর ছড়ানো অসংবেদনশীল, দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ। নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারে কপিলের নেতৃত্বে খেলেছেন বলে তাঁকে নিয়ে আলাদা আবেগ রয়েছে মদনলালের বোঝাই যায়।

মদনলাল আরো বলেছেন, যখন ওঁর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ফলে মানসিক চাপের মধ্যে কাটিয়েছে, সেসময় দয়া করে আমরা যেন সংবেদনশীল আচরণ করি।

ইতিমধ্যে কপিলও তার মৃ-ত্যু-র জল্পনা কে দূরে সরিয়ে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির পর ১৯৮৩র বিশ্বকাপজয়ী টিমের সতীর্থদের অভিনন্দন জানিয়ে বিশেষ বার্তায় শীঘ্রই শুভানুধ্যায়ীদের সঙ্গে দেখা করার বাসনা প্রকাশ করেন। লেখেন, তিনি সুস্থ বোধ করছেন।ধন্যবাদ জানিয়ে সবার সাথে দেখা করার ইচ্ছেও প্রকাশ করেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button