নিউজ

দারুনভাবে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতের অর্থনীতি! মন্দার আশঙ্কা উড়িয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-করোনার আবহের জন্য পৃথিবী তথা দেশজুড়ে আর্থিক মন্দা দেখা দিয়েছে । তার পাশাপাশি কোথাও যেন এই আর্থিক মন্দা তীব্রভাবে প্রভাব ফেলেছে ভারতবর্ষের উপর । তবে এই করোনার সময়কে কাজে লাগাবার জন্য আহবান দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

ভারতকে করে তুলতে হবে আত্মনির্ভর এমনটাই দাবি করেছিলেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী। তবে বাস্তবে তার প্রতিফলন দেখা যায়নি বিন্দুমাত্র। বরং ভেঙে পড়েছে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা । কমে গেছে জিডিপি । তবে এ ব্যাপারে দেশবাসীকে চিন্তিত থাকতে বারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী । তিনি জানিয়েছেন ঠিক যতটা আশা করা গিয়েছিল তার থেকেও বেশি হারে আবার নতুনভাবে গড়ে উঠতে চলেছে দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা।

লকডাউন এর সময় দেশের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে দেশকে আত্মনির্ভর হতে হবে। বিদেশি পণ্য বর্জন করে স্বদেশী পণ্য গ্রহণ করতে হবে । তবেই হয়ে উঠবে দেশ আত্মনির্ভর। কিন্তু এর প্রতিফলন বাস্তবে ঠিক ঘটেছে অন্যরকম। যদিও ভারতবর্ষে এখনো পর্যন্ত বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে দেশকে আত্মনির্ভর করার জন্য। তবুও ফের আরও একবার প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে আশ্বস্ত করলেন যে আগামী দিনে ভারতবর্ষের শ্রেষ্ঠ আসন লবে।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী বলছিলেন,”অর্থনীতি প্রত্যাশার তুলনায় অনেক দ্রুত ছন্দে ফিরছে। কৃষি, প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ উৎপাদন ক্ষেত্রে স্থায়ী বৃদ্ধি, গাড়ি-বাইকের বেচাকেনা বৃদ্ধি, ইপিএফও (EPFO) সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধির মতো পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ই অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে।”

প্রধানমন্ত্রী বলছেন, ইপিএফও সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি এবং উৎপাদন বৃদ্ধির মতো বিষয়গুলি স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে চাকরির বাজার ফের প্রসারিত হওয়া শুরু করেছে। মোদির (Narendra Modi) কথায়, ভারত নিজের ক্ষমতাতেই গোটা বিশ্বের উন্নয়নের হাবে পরিণত হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর দাবি, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যেমন নতুন একটা পৃথিবীর সৃষ্টি হয়েছিল, করোনা পরবর্তী যুগেও সেটাই হতে চলেছে। আর তাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে ভারত।

এর পাশাপাশি দেশের প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে জানিয়েছেন যে কয়লা ,বাইক কেনাবেচা, সোনা ইত্যাদি আরো অনেক কিছু নিয়ে ভারত আবার উঠে দাঁড়াতে চলেছে খুব শিগগিরই । এবং তার সাথে সাথে ভারত পরীক্ষিত ভাবে দেশের গরীব মুক্ত করতে সক্ষম হচ্ছে । এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা যে আদতে প্রধানমন্ত্রী এই কথাগুলি বাস্তবে কতটা দেখা মিলবে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button