নিউজ

‘করোনাকালে বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ালো ভারত’, মানবিকতা ভুলে বন্ধু দেশ হিসেবে চিনকে ধন্যবাদ শেখ হাসিনার!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-দেশে করোনা তারপরে আর্থিক সংকট । যখন দেশে একেক করে বড় বড় সংস্থাগুলো তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছে ,বেড়ে চলেছে বেকারের সংখ্যা ঠিক তখন চীন সীমান্তে একই সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে যুদ্ধের আবহাওয়া । ঘটনাগুলি আমাদের অজানা নয় কারুর।

কাজেই ভারত-চীন সীমান্তে দুই দেশের সেনা বল । ইতিমধ্যে উঠে আসা এক তথ্য অনুযায়ী রীতিমতো কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছে দেশজুড়ে। এর আগে শোনা যাচ্ছিল চীন এবং বাংলাদেশের সম্পর্কের কথা । কিন্তু এবার তা পুরোপুরি ভাবে স্পষ্ট।

সূত্রানুসারে জানা যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ,আর্থিক ,সামাজিক উন্নয়ন এবং করোনা প্রতিদমনে চীনের প্রশংসা করেছেন একটি বিশেষ চিঠি তে । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যক্ত করেন যে, উভয় দেশ অর্থাৎ ভারত এবং বাংলাদেশ সহযোগিতার নতুন ক্ষেত্র সন্ধানের মাধ্যমে সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করতে পারে।

এর পাশাপাশি বাংলাদেশের মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে চীন এবং বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্ব সম্পর্ক ,মূল্যবোধ এবং জাতীয় আদর্শবাদের প্রতি বিশেষভাবে জোর দিয়েছেন। তার সাথে চীনের প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য কামনা করেছেন ওই চিঠিতে । এমনটাই জানা যাচ্ছে চীনের দূতাবাস থেকে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই দেশের শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির কথা উল্লেখ করে চিন ও বাংলাদেশের মধ্যকার ২০১৬ সালের সহযোগিতার কৌশলগত অংশীদারত্বের কথা তুলে ধরেন। এর সাথে যে তিনি তুলে ধরেন ২০১৯ সালে চীন সফরের মুহূর্ত যা তার কাছে বিশেষ দামি । বাংলাদেশ এবং চীনের এই সম্পর্ককে রীতিমতো বেশ কৌতূহল চলছে দেশজুড়ে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button