নিউজস্বাস্থ্য এবং চিকিৎসা

মাত্র 45 দিনেই প্রাকৃতিক উপায়ে বাড়িতে বসেই ঝুলে যাওয়া বা ছোট স্ত’ন বড় ও টাইট করার কার্যকরী উপায়!

নিজস্ব প্রতিবেদন:– কোনও শারীরিক বদলই রাতারাতি হয়না তবুও মহিলাদের জন্য আসতে চলেছে কিছু সুরাহা।অনেকেই বয়সের সাথে বা হ’র’মো’নাল প্রভাবে স্ত’ন ছোটো থাকে বা ঝুলে যায়।তবে গবেষণা মাধ্যমে জানা গেছে এগু’লির সমাধান সম্ভব।শুধু জানতে হবে কিছু সঠিক উপায় যা আপনি নিয়ম মতন পালন করলে পেতে পারেন সমাধান।তবে একেবারেই দ্রুত ফলাফলের আশা করবেন না। অন্তত এর ফলাফল পেতে ২০-৩০ দিন সময় লাগবে। সবার প্রথমে জেনে নিলে যদি আপনার স্ত’ন ছোট বড় হয় তাহলে আপনার কিরকম ধরনের পোশাকে বেশি ভালো মানাবে!

স্তনবর্ধনকারী ব্রা – আমার লিস্টে প্রথমে অবশ্যই থাকবে স্ত’ন’বর্ধনকারী ব্রা। হ্যাঁ, এটি পরার সাথে সাথে আপনার তখন অনেকটাই পরিপূর্ণ দেখাবে। ‘ডিটেইল্‌ড নেকলাইন ওয়্যার’ আপনি পরতে পারেন একটি দৃষ্টি বিভ্রম তৈরি করার জন্যে। উদ্ধত ও উজ্জ্বল রঙের আঁকিবুঁকি কাটা পোশাক পরুন। নিচে যা পরবেন তা যেন ওপরের পোশাকের চেয়ে বেশি আকর্ষণীয় না হয়। আপনি যদি উল্টোটা করেন তাহলে আপনার স্তন আকারে অনেক ছোট দেখাবে।ক্লিভেজ দেখানোর জন্য আপনি মেকআপ এর সাহায্য নিতে পারেন।

এবার আসুন জেনে নিই সেই ৫ টি অকৃত্তিম পদ্ধতি: এবার আর ছোট স্তনের জন্য কোন রকম চিন্তাভাবনা না করে তাড়াতাড়ি এই পদ্ধতি গু’লি প্রয়োগ করতে শুরু করুন। দুধ এবং দুগ্ধজাত যেকোনো খাবার, মাখন ইত্যাদি খাবারগু’লো স্তনের সাইজ বড় করার জন্য ভীষণই লাভজনক। স্তনের তন্তুগুলো কিন্তু আসলে ফ্যাটেই পরিপূর্ণ থাকে। ফ্যাটযুক্ত খাবার থেকেই স্তনের ফ্যাট পাওয়া যায়।

সয়া মিল্ক ও সয়াবিন – আমরা সবাই জানি সয়া মিল্ক প্রোটিনে ভরপুর থাকে। এতে যে আইসোফ্লাভন থাকে তা ইস্ট্রোজেনের কাজকে অনুকরণ করে ও স্তনের আকার বড় করতে সাহায্য করে ।তবে এটি অধিক পরিমাণে খাবেন না কারণ এতে আপনার মাসিক চক্র প্র’ভা’বিত হতে পারে এবং ব্রেস্ট ক্যানসারের সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে। অবাক হবেন তৃতীয় উপায়টি শুনে।কিন্তু আপনি হয়তো জানেন না যে স্ত’নের আকার বড় করতে পেঁপে ভীষণই উপকারি। দুধের সাথে পেঁপে খেলে আপনি অভাবনীয় ফলাফল পাবেন। তবে গ’র্ভ’বতী মহিলারা কিন্তু এটি কখনোই খাবেন না।

স পালমেটো’ –এটি খুবই উপকারি একটি হ’র’ম’ন নিয়ন্ত্রণকারী ভেষজ। এতে স্ত’ন’বর্ধনকারী অনেক বৈশিষ্ঠ্য রয়েছে।এছাড়া স্ত’নে’র আকার বড় করতে আপনি কিছু মসলা প্রয়োগ করতে পারেন।যেমন- বীজের পেস্ট বানিয়ে তা স্তনে ম্যাসেজও করতে পারেন। এই বীজ ব্যবহারের আরও একটি উপায় হ’ল এই বীজকে ফাটিয়ে কোনও তেলে(সর্ষের তেল হতে পারে) মিশিয়ে নিয়ে স্তনে ম্যাসেজ করা।

মেথির তেলও একটা ভাল বিকল্প। যেহেতু মেথির অঙ্কুরে বেশি পরিমাণে ডায়োসজেনিন থাকে, এটাও স্ত’নের সাইজ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। ডাক্তারের পরামর্শ নিলে ভালো হয় এই বিষয়ে।মৌরি চিবোতেই পারেন। আপনার খাবারে মৌরির গুঁড়ো দিতে পারেন বা মৌরির পেস্ট বানিয়ে কোনও তেলে মিশিয়ে তা দিয়ে স্ত’নে ম্যাসেজ করতে পারেন।তবে কোন জিনিস অতিরিক্ত ভালো নয় তাই প্রতিটি জিনিস খাবার বা ব্যবহার করার আগে এর পরিমাণ এর খেয়াল রাখবেন। দরকার হলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।

নয়তো দেখা দিতে পারেশ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া।এছাড়াও স্ত’ন বর্ধনকারী ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।ক্রিম এবং লোশন ব্যবহার করার সময়ে আপনি আপনার স্ত’নে ম্যাসেজ করতে পারবেন যত্ন সহকারে।স্ত’ন ম্যাসাজ করার জন্য হাত দিয়ে চক্রাকারে ম্যাসেজ করতে হবে স্ত’নে। স্ত’নের দুই ধার থেকে ম্যাসেজ করে বিভাজিকায় এসে থামতে হবে। ম্যাসেজ করার এই পদ্ধতিটি প্রমাণিত। একই পদ্ধতিতে দিনে ২০০-৩০০বার ম্যাসেজ করলে স্তনের তন্তুগুলো বলিষ্ঠ হয়ে উঠবে।খুব বেশি করবেন না এতে ব্যথা অনুভব হতে পারে।

এই মেসেজ পদ্ধতি প্রেমিক যুগলদের জন্য খুব রোমাঞ্চকর। স্ত’নে’র আকার আসলে পুরোটাই জিন, শরীরের ওজন ও আপনার জীবনধারার ওপর নির্ভর করে। আপনি আপনার পছন্দ মতন স্তনের জন্য সার্জারি করাতে পারেন। তবে চেষ্টা করবেন কৃত্রিম উপায়ে না প্রয়োগ করে প্রাকৃতিক উপায়ে ফল লাভ করতে। করতে পারেন কিছু ব্যায়াম। ওয়াল প্রেস এবং হরাইজন্টাল চেস্ট প্রেস এই দুটি ব্যায়াম বিশেষ কার্যকরী।খেয়াল রাখবেন যেন ব্যায়াম করার সময় সঠিক পদ্ধতি মেনে করা হয়।সব শেষে ব’লি, সব মানুষ হয় নিজের মতন করে সুন্দর তাই পছন্দ মতন স্তনের আকার না থাকলেও নিজেকে ছোট মনে করবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button