নিউজভিডিও

এইভাবে পায়েস রান্না করলে তার স্বাদ হবে অতুলনীয়, একবার খেলে মুখে লেগে থাকবে আপনার, রইলো পদ্ধতি (ভিডিও সহ)

নিজস্ব প্রতিবেদন:-বাড়ির কারোর জন্মদিন হোক বা কোন অনুষ্ঠান বাড়ি খাবারের তালিকায় যে খাবারটি থেকেই থাকে সেটি হল পায়েস । সাধারণত আমরা বাড়িতে সিমুই পায়েস বা চালের পায়েস করে থাকি। তবে কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা যায় তার স্বাদ খুব একটা ভালো হয়ে ওঠে না। আবার কখনও কখনও পায়েস এর স্বাদ অমূল্য হয়ে ওঠে।

আমাদের ভারতবর্ষে কোন কিছু শুভ সূচনা হলে সেটিকে উদযাপন করি আমরা পায়েস খাওয়ানোর সাথে। অর্থাৎ বিয়ে বাড়ি হোক জন্মদিন হউক বা আলাদা যেকোনো ধরনের শুভকাজ হোক সেই সমস্ত কিছুর মধ্যে আমরা পায়েস এর সাথে উদযাপন করে থাকি। কাজেই ভারতবর্ষের ইতিহাসে পায়েস এর প্রচলন বহুদিন ধরে আছে। কিন্তু সুস্বাদু পায়েস বানানো যায় কিভাবে এটা হয়তো অনেকেই জানেনা আজকের আলোচনা সেটি নিয়ে। কিভাবে বানাবেন সুস্বাদু পায়েস।

প্রথমে আপনাকে এক লিটার দুধ নিয়ে নিতে হবে মাথায় রাখতে হবে দুটি যেন টোন মিল্ক হয় অর্থাৎ প্যাকেটের দুধ । এরপর আপনাকে সেটি কে গ্যাসের মধ্যে লোভ ফ্লেম এ চাপিয়ে দিতে হবে। সেখান থেকে অর্ধেক বাটি দুধ আমরা আলাদা ভাবে তুলে রাখবো। এবার যেটি অবশিষ্ট ছিল সেই দুধের মধ্যে দুটি তেজপাতা এবং দুটি এলাচ দিয়ে ভালো মতন নাড়তে হবে।

অপরদিকে যে অর্ধেক বাটির দুধ আমরা তুলে রেখেছিলাম সেই দুধের মধ্যে আমরা ১০০ গ্রাম মিল্ক পাউডার মিশিয়ে ভালো রকম ভাবে একটি মিশ্রণ তৈরী করে নেব। শুধু মাত্র এখানেই শেষ নয় । এরপর আপনাকে একটি পাত্রে ৫০ গ্রাম চাল নিতে হবে । সেটিকে হাত দিয়ে ভালো মতন ঘষে নেবেন। তারপর তার মধ্যে এক চামচ ঘি যোগ করবেন। সেটিকে ভালো মতন ভাবে মাখাবেন।

ততক্ষনে গ্যাসের মধ্যে ফুটন্ত অবস্থা থাকা দুধ অনেকটাই ঘন হয়ে আসবে ।এরপর ঘন দুধের মধ্যে ঘি মাখানো চাল ফেলে দেবেন। তারপরে ভালো মতন নাড়তে থাকবেন। কিছুক্ষণ পর যোগ করবেন মিল্ক পাউডার মেশানো অর্ধেক দুধ। তারপর আবারো কিছু ক্ষন নাড়তে থাকবেন যতক্ষণ পর্যন্ত চালটি সেদ্ধ হয়ে আসে।

তারপর আপনাকে যোগ করতে হবে আড়াইশো গ্রাম বাতাসা যাতে পায়েস এর রং একটু লালচে রঙের হয়। ১ লিটার দুধে আড়াইশো গ্রাম বাতাসা যথেষ্ট পরিমাণ । এর বেশি যদি আপনারা মিষ্টি খেতে চান তাহলে অতি অবশ্যই যোগ করতে পারেন। এরপর বাতাসা গুলি যতক্ষণ পর্যন্ত গলে যাচ্ছে । ততক্ষণ পর্যন্ত আরো একবার নাড়তে থাকুন। নাড়া হয়ে গেলে হয়ে যাবে চালের পায়েস যা একবার খেয়ে দেখলে ভুলবেননা স্বাদ কখনো ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button