নিউজ

“গুজরাটি ভাষায় জয়েন্ট এন্ট্রান্স হলে বাংলা ভাষায় কেনো নয়?” কেন্দ্রকে কড়া চিঠি মমতার!

Advertisement

নিজস্ব প্রতিবেদন :-বাংলা ভাষা হল মায়ের ভাষা । এরাজ্যে প্রায় ৮৬ শতাংশ বাঙালি বসবাস করে ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে। ভাষার ভিত্তিতে গড়ে ওঠে রাজ্য । ঠিক তেমনই পশ্চিমবঙ্গ গড়ে উঠেছে বাংলা ভাষার ভিত্তিতে। অর্থাৎ এখানে বাংলা ভাষা মানুষ এর অধিক বসবাস ।

Advertisement

তার পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে বিহারী ,গুজরাটি, মাড়োয়ারি সকল সম্প্রদায়ের সকল জাতির মানুষ মিলেমিশে থাকে। কিন্তু প্রশ্ন আসে যখন চাকরির পরীক্ষায় বা উচ্চশিক্ষার পরীক্ষায় তখন কোথাও যেন বাংলা টা হারিয়ে যায় । বাকি সব ভাষায় থাকে সেখানে বাংলা শুধু থাকে না । রীতিমত এটা একটা বাংলার অপমান এমনটাই মনে করছেন অনেকে।

Advertisement

গতকাল মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য নবান্নে সভাঘরে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা জানায় । তার সাথে সাথে আগামী দিনে তাদের জীবন যেন আরও সাফল্যমন্ডিত হয়ে ওঠে এই প্রার্থনা করেন ।

Advertisement

তার সাথে সাথে সরকার জানিয়েছে যে এ রাজ্যে প্রায় ৩০ টি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হয়েছে । ৮৮ টি পলিটেকনিক কলেজ তৈরি করা হয়েছে । ১৮৮ টি আই টি আই কলেজ তৈরি করা হয়েছে এবং আরো প্রচুর কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ চলছে। অর্থাৎ এ রাজ্যের পড়ুয়াদের শিক্ষার সাথে কোন রকম আপোষ করতে নারাজ এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী । তার সাথে তিনি এ রাজ্যের পড়ুয়াদের মেধা প্রশংসাও করেছেন ।

Advertisement

তবে তার পাশাপাশি তিনি তুলে ধরেছেন বাংলা ভাষা হারিয়ে যাওয়ার ঘটনাকে। জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সাম গুজরাটি ভাষায় পরীক্ষা হলে বাংলা ভাষায় কেন হবেনা ? এ প্রশ্ন করেন ওইদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ভারতে জাতীয়তাবাদ সংগঠন ” বাংলাপক্ষ ” ইতিমধ্যে বাংলা ভাষার অগ্রাধিকারের অগ্রাধিকারের দাবিতে বিভিন্ন বিভিন্ন রকম ভাবে সরব হয়েছেন । কিন্তু এবার মুখ্যমন্ত্রী হলেন ।

Advertisement

তিনি বলেন যে” আমরা জানি এবারে ছাত্রছাত্রীরা জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সামিনেশন হিন্দি এবং ইংরেজি ভাষায় দিয়েছে। এর পাশাপাশি গুজরাটি ভাষায় দেওয়া যেতে পারে । যেটা গুজরাটে প্রচলন আছে । কিন্তু সেই পরীক্ষায় বাংলা থাকবে না কেন ? এ সম্পর্কে কেন্দ্রীয় সরকার কে চিঠি পাঠিয়েছে রাজ্য। এবং আগামী দিনে জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সামিনেশন এ যাতে বাংলা ভাষা থাকতে পারে তা তার ওপর নজর রেখেছেন।

Advertisement

শুধুমাত্র বাংলা ভাষা থাকা নয় বাংলা ভাষা থাকলে গ্রাম গঞ্জের বিভিন্ন মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা নিজের মনের ভাব প্রকাশ করতে আর স্বাচ্ছন্দ বোধ করবে। আর নিজেদের প্রতিভা ফুটিয়ে তুলতে পারবে। এমনটাই বিশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর। তবে বাংলা ভাষা জয়েন্ট এন্ট্রান্স এক্সামিনেশন এ ঠিক কবে থেকে শুরু হতে চলেছে সেটা শুধু একমাত্র সময়ই বলবে ।

Advertisement

Advertisement

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button