নিউজ

‘কাগজ দেখানোর আগে আপনাদের দরজা দেখাব’, নাড্ডাকে একহাত নিলেন মহুয়া মৈত্র!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-বিধানসভার ভোট যতই এগিয়ে আসছে ততই যেন পাল্টাচ্ছে রাজনীতি মহলের রং। যত দিন যাচ্ছে ততই স্পষ্ট হচ্ছে চিত্রটা। কার দলে নাম লেখাচ্ছে বা কে কোন পদ হারিয়ে অন্য দলে যোগ করছে তার খুঁটিনাটি সমস্ত খবর দিনের-পর-দিন পরিষ্কার হয়ে উঠছে। বলাবাহুল্য মাঠের মধ্যে নেমে পড়েছেন সকলে। কারণ হাতে যে আর বিন্দুমাত্র সময় নেই ।যেমন করেই হোক এবারের বিধানসভা ভোটে বাংলা দখল করতেই হবে ।এমন একটা চিন্তা ধারা রয়েছে বিজেপির মধ্যে।

বিজেপি এই চিন্তা ধারা থেকে জন্ম নিয়েছে যে ভাবনাটা সেটি হলো বাঙালির আবেগ এবং মনকে জয় করতে হবে যদি বাংলায় ক্ষমতায় আসতে হয় ।তাই বাঙালিয়ানায় সাজতে চলেছে বিজেপি ।ইতিমধ্যে বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি কেমন এবং নেতা-মন্ত্রীরা কি কি করে চলেছেন এই মুহূর্তে সেই সমস্ত খুঁটিনাটি বিষয় দেখতে রাজ্যে পা রেখেছিলেন বিজেপি কেন্দ্রীয় সম্পাদক জেপি নাড্ডা।

শিলিগুড়ি একদিন ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাবুল সুপ্রিয় থেকে শুরু করে কৈলাস বিজয়বর্গীয় সহ আরো অনেক নেতা মন্ত্রীরা। তবে সেদিন শিলিগুড়ির ওই বৈঠক থেকে তিনি একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প মমতা ব্যানার্জি ইচ্ছাকৃতভাবে এই বাংলায় কার্যকর হতে দিচ্ছেন না । লক্ষ লক্ষ মানুষকে সেই সমস্ত সুবিধা থাকে দূরে সরিয়ে রেখেছে ।শুধু মাত্র এখানেই থেমে থাকেননি তিনি আরো একটি বিষয় তুলে ধরেছেন যেটি সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে ।

জেপি নাড্ডা মনে করিয়ে দেন যে বিজেপি নাগরিকত্ব বিল ভুলে যায়নি। বেশ কিছুদিন আগে নাগরিকত্ব বিল নিয়ে শোরগোল পড়েছিল দেশজুড়ে কিন্তু সময়ের সাথে সাথে কোথাও যেন ধামাচাপা পড়ে যায় সেই ঘটনা । ফের আবার সেটিকে চাঙ্গা করতে তিনি মনে করিয়ে দিলেন যে খুব শিগগিরই নাগরিকত্ব বিল চালু হবে রাজ্যজুড়ে ।

মানুষদের আস্বস্ত করেন যে নাগরিকত্ব বিল লাগু হলে সুবিধা হবে জনসাধারণের ।এর পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকে আসা শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেবে এই বিল । কিন্তু এবার সেই বিলের বিরুদ্ধে বলাবাহুল্য কেন্দ্রীয় সম্পাদক এর বিপক্ষে সুর চড়ালেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মিত্র ।

এর আগে মহুয়া মিত্র কে বিভিন্ন ঘটনায় সরব হতে দেখা গেছে। তবে এবারের লক্ষ্য বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক ।তিনি তার কথার পাল্টা জবাব দি একটি টুইট করেন এবং টুইটারে লেখেন যে “শোনো হে বিজেপি কাগজ দেখাবার আগে তোমাদেরকে আমরা দরজা দেখাবো” যদি এই ঘটনার পর থেকে এখনো বিজেপির পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবুও কোথাও যেন মনে হচ্ছে নাগরিকত্ব বিল লাগু হতে বেশ অনেক কাঠ-খড় পোড়াতে হবে বিজেপিকে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button