নিউজ

‘আগামী তিন বছরে রাজ্যে ৩৫ লক্ষ কর্মসংস্থান করে দেখাবো’, বড় আশাবাদী মুখ্যমন্ত্রী!

নিজস্ব প্রতিবেদন ;-আর মাত্র কয়েকটা মাস তারপরে বিধানসভার ভোট । এই ভোট ঠিক করে দেবে যে আগামী দিনে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসতে চলেছে কে। কাজেই সেই আসন পাবার তাগিদে মাঠে নেমে পড়েছেন প্রত্যেক রাজনৈতিক দলগুলি। এবং এই মুহূর্তে এই রাজ্যে সবথেকে বড় যে সমস্যাটি হল কর্মসংস্থান। অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গ বেকারত্বের দিক থেকে ক্রমশ এগিয়ে চলছে দিন দিন । এবার সেই কর্মসংস্থানকে ঢাল করে এগোতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যেহেতু এই রাজ্যে বিপুল পরিমাণ সংখ্যক ছেলে মেয়ে বেকার ,কর্মসংস্থান হয়নি । তাই মূলত কর্মসংস্থানকে ইস্যু করে আগামী বিধানসভা ভোটে মানুষের বিস্বাস আরো একবার অর্জন করতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি দুর্গোত্সবের পরে তড়িঘড়ি করে নবান্নের বৈঠক এর ডাক দেন এবং এই বৈঠক থেকে তিনি জানান যে আগামী তিন বছরে ৩৫ লক্ষ্য কর্মসংস্থান করতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস ।

যদিও অনেকে এটিকে কটাক্ষ করে বলেছেন যে ভোটের আগে এই ধরনের আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রী এর আগেও দিয়েছেন কিন্তু কাজে তিনি কিচ্ছু করেননি।এই কর্মসংস্থান এর মধ্যে ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পে ১৫ লক্ষ ধরা হচ্ছে। তাছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে ৫ লক্ষ চাকরির সম্ভাবনার কথা বলেছেন। আর হ্যান্ডলুম এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে। নিউটাউনে ২০০ একর জমির উপর প্রস্তাবিত সিলিকন ভ্যালির কাজ খতিয়ে দেখতে তিনি শীঘ্রই পরিদর্শনেও যাবেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী বেশ কয়েকটি জেলাতে নতুন করে বাস টার্মিনাল উদ্বোধন করেন এবং প্রতিটি জায়গায় ১০০ দিনের কাজের উপর জোর দিতে বলেন । আশানুরূপ কাজ না করার জন্য ওই দিন তিনি দুর্গাপুর পৌরসভা মেয়র কে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন । তার পাশাপাশি দলীয় কর্মীদের সচেতন করেন এবং একথা স্পষ্ট করে দেন যে উন্নয়নের জন্য কোনরকম আপস করা আর চলবে না। এত কিছুর পরও শুধুমাত্র এখন সময় বলতে পারে যে কে হতে চলেছে আগামী দিনের মুখ্যমন্ত্রী। ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button