নিউজপলিটিক্স

“যত চোর, ছ্যাচোর, গুন্ডা,বদমাস, পকেটমার নিয়ে দিদিমনির রাজনীতি”- হাথরাস কাণ্ডে মমতার পথে নামা নিয়ে কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-উত্তরপ্রদেশের গণধ-র্ষ-ণ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো উত্তাল দেশ। তার সাথে উত্তাল রাজনৈতিক মহল গুলি । সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি ক-টা-ক্ষ করছেন উত্তরপ্রদেশ সরকার এবং প্রশাসনের বিরুদ্ধে । বাদ যায়নি আমজনতারা ও। রাস্তার মোড়ে মোড়ে পাড়ায় পাড়ায় চলছে ক্যাম্পেন, প্রতিবাদ মিছিল। দাবি একটাই দোষীদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হোক । এর পাশাপাশি রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ মিছিল করেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলো। তাদের মধ্যে অন্যতম হলো শাসক দল।

হাতরাস কাণ্ডে নি-র্যা-তি-তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন বাংলার শা-স-ক দলের নেতা মন্ত্রীরা। কিন্তু গ্রামের বেশ কিছুটা আগে পুলিশের ধারা বাধাপ্রাপ্ত হয় এবং ধাক্কাধাক্কিতে মাটিতে পড়ে যান ডেরেক ও’ব্রায়েন । এই ঘটনাটি মোটেও ভালো হয়নি ঘাসফুল শিবির। এর পাশাপাশি বাংলার সাংসদ নুসরাত জাহান উত্তরপ্রদেশের সরকারকে কটাক্ষ করেছেন ।প্রশ্ন তুলেছেন যোগী আদিত্যনাথ এর বিরুদ্ধে।

শুধুমাত্র তাই নয় ওই নির্যা-তি-তা-র পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে বা কথা বলতে দেওয়া হচ্ছেনা সাংবাদিকদেরও । বারবার পুলিশ দ্বারা আটকানো হচ্ছে । কিন্তু কেন ? প্রশ্ন খুঁজে চলেছে সবাই। গতকাল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এর প্রতিবাদে রাজপথে নামে এবং প্রতিবাদ মিছিল করে। কিন্তু এই প্রতিবাদ মিছিল কে মোটেও ভাল চোখে দেখেন নি গেরুয়া শিবির । করেছে পাল্টা কটাক্ষ এবং যিনি করেছেন কটাক্ষ তিনি আর কেউ নন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ । এই দিলীপ ঘোষ এর আগে তার নিজের বক্তব্যের জন্য বহুবার বিতর্কে জড়িয়েছেন ।

মুখ্যমন্ত্রীর ওই প্র-তিবা-দ মিছিলকে কেন্দ্র করে তিনি বলেন যে ” হাথ্রাস এর মতন কান্ড এই বাংলায় অলিতে-গলিতে হচ্ছে এবং সেগুলো করছে তৃণমূলের গুন্ডা । মূলত সে গুলোকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এই নাটক করছে । কারণ তার চেহারা বাংলা মানুষের কাছে স্পষ্ট । আমি বলেছিলাম ১৯ এ হাফ ২১ এ সাফ । তেমনটাই হতে চলেছে । তবে দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। কোথাও যেন এই কান্ডে বিন্দুমাত্র অনুতপ্ত নয় তিনি এমনটাই মনে করছেন অনেকে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button