নিউজ

ফের আর্থিক জালিয়াতি! Punjab National Bank এর গ্রাহকদের জন্য আসলো চরম দুসংবাদ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-এর আগে আমরা দেখেছি ব্যাংক থেকে অধিক পরিমাণে টাকা ঋণ নিয়ে তা সময়মতো মেটাইনি এবং রীতিমত দেশ থেকে পালিয়েছে বিদেশে । এই ঘটনা আমাদের কম বেশী সকলেরই জানা । এর পাশাপাশি ছোটখাটো ব্যাংক জালিয়াতি প্রায়ই ঘটে থাকে এদেশে । রীতিমতো একপ্রকার নাজেহাল ব্যাংক কর্তৃপক্ষ গুলি এই জালিয়াতির জন্য।

বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম কড়া পদক্ষেপ নিলেও তা আদতে কোন কাজে লাগেনি । সেরকমই প্রমাণ হলো আরো একবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে । ফের আরও একবার বিপুল পরিমাণ অর্থ ঋণ নিয়ে তা না মেটানোর অভিযোগ উঠল এক সংস্থার বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানাবো আপনাদের ।

আমরা সাধারণত ব্যাংকে আমাদের সারা বছর বা জীবনের উপার্জন সঞ্চয় করে রাখি। এর পাশাপাশি যদি কোনো আর্থিক সাহায্যের দরকার হয় তাহলে আমরা তা ব্যাংক থেকে ঋণ হিসেবে নিয়ে থাকি । একটি নির্দিষ্ট সময় ধরে চলে এই ঋণের মেয়াদ এবং সেই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আমাদের মিটিয়ে ফেলতে হয় ব্যাংকে তার প্রাপ্য টাকা ।

কিন্তু দেখা গেছে এমন কিছু ব্যবসায়ী আছে যারা ব্যাংক থেকে লক্ষ ,কোটি টাকা ঋণ করে কিন্তু তা আর মেটায় না বরং পালিয়ে যায় দেশ ছেড়ে । রীতিমতো দেউলিয়া হয় সেইসব ব্যাংক কর্তৃপক্ষ । ফের আরো একবার এরকম ঘটনার শিকার হলো পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক।

পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে ১,২০৩ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে তা এখনো অবদি মেটাইনি গুজরাটের একটি সংস্থা। বুধবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে ঘটনার কথা জানায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এর আগে একাধিক আর্থিক জালিয়াতির শিকার হয়েছে এই ব্যাংকটি। ঋণ নিয়ে দেশ ছেড়েছেন একাধিক ব্যবসায়ী।  বারবার এই ঘটনা ওই ব্যাংকের সাথে ঘটার ফলে রীতিমতো মাথায় হাত এই মুহূর্তে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। পড়েছে মোটা রকমের দুশ্চিন্তার ভাঁজ ।

এর পাশাপাশি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানান আহমেদাবাদের ধুঁকতে থাকা সিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেডকে এই অঙ্কের অর্থ ঋণ হিসেবে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তা এখনও ফেরত পাওয়া যায়নি। বদলে গত ডিসেম্বরে সই ঋণ ফেরতের ধরণ বদলাতে চেয়ে আবেদন জানিয়েছিল সংস্থা। স্বাভাবিকভাবেই তা মঞ্জুর হয়নি। প্রাপ্য টাকা ফিরিয়ে আনতে ব্যাংক খুব সম্ভবত এবার আইনের পথে হাটবে । কিন্তু বলা অসম্ভব যে আদৌ সেখানে সুবিচার পাবে কিনা। কারণ এর আগে এরকম অনেক ঘটনা ঘটেছে যার ফলে দেউলিয়া হয়েছে বিভিন্ন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button