নিউজ

অশ্বিন বা মল মাসে বাড়ির মহিলারা ভুলেও যে সাতটি কাজ করবেন না, করলে আর্থিক ও শারীরিক ক্ষ’তি হওয়ার সম্ভবনা প্রবল!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমরা সকলেই ইতিমধ্যে জানি যে মহালায়া ৩৫ দিন পর দুর্গাপুজো শুরু । অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর আর সাত দিনের মাথায় শুরু হচ্ছে না দুর্গাপুজো । তার কারণ চলতি মাস মল মাস মাস হিসেবে পরিচিত । এই মল মাসে কোন শুভ কাজ করতে নেই । তাই এই বিরম্বনা। মহালয়ার দিন শেষ হয় পিতৃপক্ষ, শুরু হয় দেবীপক্ষ। কিন্তু এই দেবীপক্ষ কে সামনে রেখে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে বলা হচ্ছে ।

চলতি মাস কে শ্রীকৃষ্ণের মাস বলা হয় কারণ এই মাস শ্রীকৃষ্ণ খুব পছন্দের তাই এই মাস শ্রীকৃষ্ণের ১০৭ টি নাম জপ করার পরামর্শ দিচ্ছে অনেকে।এই মাস কে অনেকে পুরুষোত্তম মাস বলেও থাকে। এর পাশাপাশি এই মাস কে মল মাস হিসেবে জানা গেছে । শাস্ত্রীয় মতে এই মল মাসে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত। বিশেষ করে বাড়ির বউদের কে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত । কি সেই নিয়ম? আসুন দেখে নেওয়া যাক

শাস্ত্র মতে বাড়ির বিবাহিত বউদেরকে বিবাহিত বউদেরকে বাড়ির বিবাহিত বউদেরকে বিবাহিত বউদেরকে এই মল মাসে সাতটি জিনিস বাড়ির বাইরে কাউকে দিতে মানা করছে । কি সেই জিনিস ?

১) চাল: এই চাল হলো মা লক্ষ্মীর স্বরূপা। বাড়ির বিবাহিত মহিলারা এই মল মাসে কখনোই বাইরের কাউকে এই চাল দেবেন না। যদি দিয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনি আপনার জীবনে অনেক বড় বিপ’দের সম্মুখীন হতে পারেন। এর ফলে আপনিসহ আপনার পরিবারের সকলেরই ক্ষতি হবে।

২) সিঁদুর: বাড়িতে অনেক মহিলারাই আছেন যারা নিজেদের ব্যবহার করা সিন্দুর অন্যকে ব্যবহার করতে দেন। ভুল করেও কিন্তু এই মল মাসে আপনি আপনার ব্যবহার করা সিন্দুর কাউকে দেবেন না। যদি দিয়ে থাকেন শুধু আপনারই নয় আপনিসহ আপনার স্বামীর দুর্ভা’গ্য কেও ডেকে আনছেন। আর যার ফলে আপনাদের আর্থিক অবনতি ঘটতে পারে।

৩) সোনা বা রুপোর গয়না: আপনি আপনার বিয়ের অলংকারী বলুন বা আপনার পরা যে কোন গয়না সোনা বা রুপোর যারই হোক না কেন এই গহনা কোন মহিলাকে পড়তে দেবেন না। সে বিবাহিত মহিলাই হোক বা অবিবাহিত কখনোই আপনার গহনা অপরকে পড়তে দেবেন না এই মল মাসে। এর ফলে আপনার জীবনের সকল সুখ শান্তি বিচ’ঘ্নিত হবে।

৪) পুজোর বাসনপত্র বা স্টিলের বাসনপত্র: আমরা যেহেতু সমাজে বাস করি সেই কারণ হেতু আমরা যেমন অন্যের কাছ থেকে কিছু জিনিস চেয়ে আনে সেইরকম অন্যরাও আমাদের কাছ থেকে কিছু জিনিস চেয়ে থাকেন। কিন্তু এই মল মাস চলাকালীন আপনার বাড়ির ঠাকুর ঘরে যে পূজোর বাসন পত্র রয়েছে কিংবা আপনার রান্নাঘরে স্টিলের বাসন পত্র গুলি আছে সেগুলি এই মল মাসে আপনি কাউকে দেবেন না। যদি আপনি দিয়ে থাকেন তাহলে দেওয়ার পর থেকেই আপনার বাড়িতে আপনার জীবনে প্রতিটি মুহূর্তে খারাপ ঘটনা ঘটেই চলবে।

৫) ধারা’লো কোনো জিনিস কিংবা লোহার তৈরি কোনো জিনিস: আপনার বাড়িতে থাকা কোন ধারালো অ’স্ত্র শস্ত্র বা জিনিস যেমন ছু’রি-কাঁ’চি, কোদাল, ব্লে’ড, সেফটিপিন ইত্যাদি ইত্যাদি কেউ যদি কোন দরকারে এই আশ্বিন মাসে আপনার কাছে চাইতে আসে আপনি তা কখনোই দেবেন না। এর ফলে উভয় পক্ষের বি’পদের সম্ভাবনা খুবই প্রবল থাকে।

৬) ঝাড়ু: আপনার বাড়ির ব্যবহার করা ছাঁটাই হোক বা নতুন কিনে আনা ছাতা হোক কখনোই কাউকে দেবেন না এই মল মাসে। কারণ ছাড়া আমাদের বাড়ির সমস্ত নেগেটিভ শক্তিকে বাইরে বের করে। ঝাড়ু যদি আপনি কাউকে দিয়ে দেন তাহলে আপনার বাড়িতে পজেটিভ শক্তির চেয়ে নেগেটিভ শক্তি প্রবল হয়ে উঠবে।

৭) আপনার ব্যবহৃত জামা কাপড় :- আপনার ব্যবহার করা জামা কাপড় এই মাসে কাউকে দেবেন না । বা বিয়ের কোনো জামা কাপড় এই মাসে কাউকে দেবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button