নিউজ

কালীপুজোর আগে অবশ্যই বাড়ি থেকে সরিয়ে ফেলুন এই পাঁচটি মা’রাত্ম’ক জিনিস, নইলে আর্থিক সমস্যা মিটবেনা কোনোদিনও!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-বাঙালির শ্রেষ্ঠ পুজোর দুর্গাপূজার ইতিমধ্যে অবসান ঘটেছে। প্রত্যেকের মনে এখন বিষণ্ন এর সুর । কিন্তু তবুও বাঙালির মনে কিছুটা হলেও আনন্দ এখনো বিরাজমান । কারণ সামনে কালীপুজো। দুর্গাপুজো পাশাপাশি অনেক জায়গায় কালীপূজো বেশ বড়সড় করে আয়োজন করা হয়ে থাকে ।

এবং এই কালীপুজো কে ঘিরে বাঙালির থাকে আবেগ-অনুভূতি । কিন্তু কালীপুজোর আগের দিন হল ধনতেরাস । যাকে অনেকেই শুভক্ষণ বলে মনে করে থাকেন বাড়ির জন্য । তাই ধনতেরাস উপলক্ষে বাড়িতে কিনে আনতে দেখা যায় বিভিন্ন জিনিস । তবে তার মধ্যে সোনার ভাগ বেশি অর্থাৎ সোনার জিনিস কিনে আনার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যায় ।

ধনতেরাসে এ দেশের সর্বত্র পালন হলেও পশ্চিমবঙ্গ বিহার ঝাড়খন্ড সবথেকে বেশি পালিত হয় ধনতেরাস । আগামী ১৪ ই নভেম্বর কালীপুজো এবং নভেম্বর মাস যেহেতু উৎসবের মাস তাই এই সময় টিকে অতি উত্তম মাস হিসেবে ধরা হয়ে থাকে । তাই অনেকেই বাড়িতে কিনে নিয়ে আসেন সোনা দ্রব্য । শাস্ত্রের মতে এমন বেশ কিছু জিনিস আছে যেগুলো আপনি ধনতেরাসের দিন বাড়ি থেকে না সরিয়ে রাখলে আসতে পারে চরম অভাব অনটন ।কাজেই সেই সমস্ত জিনিসগুলি বাড়ি থেকে সরিয়ে ফেলাই ভালো।

ভাঙ্গা ঝাড়ু :- শাস্ত্রের মতে ধনতেরাস এর আগের দিন বাড়ি থেকে ভাঙ্গা ঝাড়ু সরিয়ে ফেলুন এবং কিনে নিয়ে আসুন দুইটি নারকেল ঝাড়ু । কারণ ঝাড়ু লক্ষ্মীর অতি প্রিয় হয়ে থাকে।

বাড়ির ছাদ বা চাল :- বাড়ির ছাদ কে পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন । কারণ শাস্ত্র মতে অপরিষ্কার ঘর হল অলক্ষ্মীর বাসস্থান কাজেই আপনি যতটা সম্ভব বাড়ির ছাদ পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন তা। হলে ঘটবে লক্ষ্মীর আগমনে।

ইলেকট্রনিক্স এর অচল দ্রব্য :- আমাদের বাড়িতে এমন অনেক ইলেকট্রনিক্স দ্রব্য যেমন টিভি-রেডিও কম্পিউটার ইত্যাদি থাকে যেগুলো সম্পূর্ণরূপে অচল । ধনটেরাস এর আগেরদিন সেই সমস্ত জিনিস গুলো কে বিক্রি করে দিন বা সাড়িয়ে নিন বা অন্য কোথাও সরিয়ে ফেলুন । কারণ অচল জিনিস মা লক্ষীর অত্যন্ত অপ্রিয় ।

বন্ধ হয়ে যাওয়া দেয়াল ঘড়ি :- আপনার বাড়িতে যদি বন্ধ হয়ে যাওয়া দেওয়াল ঘড়ি বা হাত ঘড়ি থাকে তাহলে অতি অবশ্যই তা ধনতেরাসের দিন সরিয়ে ফেলুন । এটা মানা হয় যে কোন জিনিস বন্ধ হয়ে গেলে সেখান থেকে নেগেটিভ শক্তির উদ্ভব ঘটে যা পরিবারের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে এবং সেই পরিবারের পক্ষে মোটেও ভালো নয় । কাজেই বন্ধ হয়ে যাওযা ঘড়ি যদি থাকে তাহলে অবিলম্বে সরিয়ে ফেলুন ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button