নিউজ

রেশন নিয়ে ফের খারাপ খবর, মাথায় হাত মধ্যবিত্তের!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-ফের আরও একবার রেশন জালিয়াতি এ দেশে। রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকার উভয়ই দেশের গরীব মানুষদের সুবিধার্থে এবং তাদের যেন খাদ্যের অভাব না ঘটে সেই সূত্রে রেশন ব্যবস্থা চালু করেন । তবে এ কথা ঠিক যে রেশন ব্যবস্থা বহু আগে থেকে চালু ছিল ।

আলাউদ্দিন খিলজির বাজারদর নিয়ন্ত্রণের কালে রেশন ব্যবস্থা প্রথম চালু করা হয় । তার পর থেকে এখনো পর্যন্ত চলে আসছে সময়ের সাথে সাথে এই রেশন ব্যবস্থা ।তবে সেই রেশন ব্যবস্থার উঠেছে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে বারবার । এ বারও তার অন্যথা হলো না।

কোন রাজ্যে কোন রেশন ডিলারের মাধ্যমে কোন কোন রেশন দোকানে রেশন দেয়া হবে তার সমস্ত যাবতীয় তথ্য কেন্দ্রীয় সরকার অন্ন বিতরণ পোর্টাল উল্লেখ থাকে। এই সমস্ত যাবতীয় তথ্য প্রদান করে থাকে রাজ্য সরকার। কিন্তু সেই পটালে কোনো তথ্য না থাকার জন্য খাদ্য সামগ্রী কাটছাঁট করল কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী ।কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, অন্ন বিতরণ পোর্টালে তথ্য ঠিকমতো আপলোড করা হয়নি।

ফলে রাজ্যের বরাদ্দ কমিয়েছে কেন্দ্র। ইতিমধ্যেই রাজ্যের তরফে পুনঃবিবেচনা করার জন্যে চিঠি পাঠানো হয়েছিল কেন্দ্রের কাছে। যদিও পাল্টা কেন্দ্র জানিয়ে দিয়েছে এই বিষয়ে তাদের কিছু করার নেই। কিন্তু কেন আপলোড হয়নি ? সেই সমস্ত তথ্য এই প্রশ্ন সামনে উঠে আসা থে মিলল এক আজব জবাব ।

রাজ্য সরকারের জন্য অবশ্য দায়ী করেছেন আম্ফান ঝড় কে। রাজ্য সরকারের মতে আম্ফান ঝড়ের কবলে পড়ে বিভিন্ন রেশন দোকানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাছাড়া বেশ কিছু জায়গায় বিদ্যুৎ সরবরাহ অনেকদিন ধরে বন্ধ ছিল ।এর পাশাপাশি যে মেশিনে এই সমস্ত তথ্য সংগ্রহ করে রাখা হতো সে মেশিনেও ঘটেছে ক্ষতিপূরণ ।

ফলে রেজিস্ট্রি খাতায় তুলে রাখা হতো সেই সমস্ত তথ্য।তাই সেই তথ্যগুলো এখনো পর্যন্ত অনলাইনে আপলোড করা হয়নি। যদিও রাজ্যের এই যুক্তি মানতে রাজি নয় কেন্দ্র। ফলে প্রায় ৯৫২ টন খাদ্যসামগ্রী রাজ্যের বরাদ্দ থেকে কেটে নেবে কেন্দ্র। যে পরিমাণ খাদ্যশস্য কেন্দ্র কেটে নিচ্ছে তার ফলে বহু গ্রাহক কেন্দ্রীয় প্রকল্পের এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন।

অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলারস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু জানিয়েছেন, গ্রাহকরা এই সমস্যা বুঝবেন না। তারা ভাববেন রেশন ডিলাররা এই প্রাপ্য তাদের দিচ্ছে না। ফলে বিক্ষোভ হতে পারে একাধিক জায়গায়। কেন্দ্রীয় সরকারের এই ভূমিকার সমালোচনা করেছেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তবে রাজ্যের চালু প্রকল্প নিয়ে অসুবিধা হবে না বলে জানিয়েছেন খাদ্য দফতরের আধিকারিকরা। ফলে আগামী জুন অবধি বিনা পয়সায় চাল-গম পাবেন তারা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button